বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
● পদ্মা সেতুতে পরীক্ষামূলক ট্রেন চলাচল উদ্বোধন      ● সাড়ে ৬ ঘণ্টা পর বঙ্গবাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে      ● বঙ্গবাজারের আগুন নেভাতে হাতিরঝিল থেকে পানি নিচ্ছে হেলিকপ্টার      ● বঙ্গবাজারে অগ্নিকাণ্ডের খোঁজখবর রাখছেন প্রধানমন্ত্রী      ● বঙ্গবাজারে ফায়ার সার্ভিসের ৫০ ইউনিট, ৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন      ● ৫ ঘণ্টায়ও নেভেনি বঙ্গবাজারের আগুন      ● ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরে হামলা, টিয়ারশেল নিক্ষেপ      ● আগুন নেভাতে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের সাথে নৌ-সেনা ও বিমানবাহিনী      ● বঙ্গবাজারের অগ্নিকাণ্ড: আশপাশের ৪ ভবনে ছড়িয়েছে আগুন      ● জ্বলছে বঙ্গবাজার : প্রতিনিয়ত বাড়ছে আগুনের তীব্রতা     
সংশোধিত ড্যাপ অনুমোদনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ , রবিবার ১২ : ০৯ পিএম   প্রদর্শিত হয়েছে ৬১৮০ বার

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সংশোধিত ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) অনুমোদন দিয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট দায়ের করা হয়েছে। রিটে গত ২৩ আগস্ট জারি করা প্রজ্ঞাপন স্থগিত এবং ২০১০ সালের ড্যাপ চালুর আর্জি জানানো হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি করেন। পিআইডব্লিউর চেয়ারম্যান ও রাজউকের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়েছে। 


রিট দায়ের করার বিষয়ে আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, ‘ড্যাপের নতুন গেজেট অনুযায়ী অনেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। আমি নিজেও ক্ষতিগ্রস্ত। বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় আমার ৫টি প্লট রয়েছে। ২০১০ সালের ড্যাপের পরিকল্পনায় এগুলো অন্তর্ভুক্ত ছিল না। কিন্তু নতুন গেজেট অনুযায়ী আমার প্লটগুলো ড্যাপের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এ কারণে বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট  দায়ের করেছি।’ 


 রাজধানী ঢাকাকে আধুনিক ও বাসযোগ্য নগর হিসেবে গড়ে তুলতে ২০ বছর (২০১৬-২০৩৫ সাল) মেয়াদি ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানের (ড্যাপ) গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে গত ২৩ আগস্ট। গেজেটটি জারি করে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। এর মাধ্যমে ২০১০ সালে পাস হওয়া ড্যাপ কার্যকারিতা হারালো। 


গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘রাজউকের এখতিয়ারভুক্ত ১৫২৮ বর্গকিলোমিটার এলাকার জন্য ঢাকা মহানগর এলাকার ড্যাপের (২০১৬–২০৩৫) খসড়া ২০২০ সালে প্রকাশ করা হয়। এরপর খসড়ার ওপর সুপারিশ ও আপত্তি দাখিল করার জন্য সবার কাছে আহ্বান জানানো হয়। পরে আপত্তি ও সুপারিশ বিবেচনা করে মহাপরিকল্পনাটি অনুমোদন করা হয়েছে। এটি অবিলম্বে কার্যকর হবে। পাশাপাশি ২০১০ সালে পাস হওয়া ড্যাপ রহিত করা হলো। কিন্তু প্রজ্ঞাপন প্রকাশের আগ পর্যন্ত ২০১০ সালের ড্যাপের অধীনে যেসব কাজ শেষ হয়েছে বা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সেগুলো বৈধ বলে গণ্য হবে।’


« পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ »





  সর্বশেষ সংবাদ  
  সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ অঞ্জন কর

প্রকাশকঃ জেরীফ আফতাব কর্তৃক

জেড টাওয়ার (৬ষ্ট তলা), বাড়ী- ০৪, রোড-১৩২, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ থেকে প্রকাশিত

ইমেইলঃ tribunenewsbd@gmail.com

© 2022 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত || tribunenewsbd.com